যখন কিছু নেই-প্রদীপ জয়ধর

Posted: October 23, 2014 in ওয়েবজিন, কবিতা, কার্ত্তিক ১৪২১

যখন কিছু নেই

ছেঁড়া প্লাষ্টিকের মত ছুঁড়ে ফেলে দেওয়া দেহটা
কুঁড়িয়ে এনেছি ডাস্টবিন থেকে
ছেঁড়া শাড়িটা জুড়িয়েছি সেলাই করে,শুধু-রয়ে গেল দাগ আরশী নগরে

বেশ তো ছিলাম,সবাই যেমন থাকে তোর ভোগ হোক বা আমার মিলনে
দিয়েও ছিলাম, যা-
ছিল আমার সব উজাড় করে
কেন গেলি চলে?

আজ পুকুরের ঘাটে,পড়ন্ত বিকেলে যখন-
জল আরশী হয়ে উঠে
গায়ে আগুন জ্বলে,মন-পুড়ে-ছাই
ইচ্ছে করে দশ মাস দশ দিনের বোঝাটা দেই ভাসিয়ে গাঙ্গের জলে

তুই তো চলে গেছিস,তোর সুখের সন্ধানে, যাবি যখন শকুনের মত ঠুকরে ঠুকরে কেন- ছিঁড়ে ছিঁড়ে খেলি দেহটাকে
যেন কত জন্মের আদিম খিদা নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলি এই দেহটার উপরে

সব তো নিলি যেমন বলির পাঠা ভাগ করে নেয় সকলে

আজ আমাকে নষ্ট বলে সকলে,বলে- আমি আর আমার পেট সবার বোঝা আর সইতে পারি না
পড়ন্ত বিকেলে পুটলা পুটলি গুছিয়েছি-
চলেছি পশ্চিমে
অস্ত যাব বলে।

Advertisements
Comments

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s